টেক নিউজ বিশেষ প্রতিবেদন

ব্যাংক এশিয়ার যৌথ উদ্যোগে গ্রাহকের কাছে এটুআই মাষ্টারকার্ড

বাংলাদেশের আইটি সেক্টরে ব্যপক উন্নয়ন হলেও এখন পর্যন্ত অনেক স্থান আছে যেখানে পর্যাপ্ত প্রযুক্তির নেটওয়ার্ক পৌঁছাই নি আর সে সব ক্ষেত্রে উন্নয়নের জন্য সরকারে বিভিন্ন সেক্টরে কাজ হচ্ছে। আর এরি সাথে ব্যাংকিং সেক্টরেও যাতে সবার অবাধ যোগাযোগ সম্ভব হয় সে লক্ষ্য কাজ চলছে। আর সে ধাঁরা অনুসারে ব্যাংকিং-সেবার বাইরে থাকা জনগোষ্ঠীর কাছে আর্থিক সুবিধা পৌঁছে দিতে অ্যাকসেস টু ইনফরমেশন (এটুআই), মাষ্টারকার্ড ও ব্যাংক এশিয়া একটি ত্রিপক্ষীয় সমঝোতা চুক্তি করেছে।

এই সমঝোতা স্মারকটিতে স্বাক্ষর করেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মহাপরিচালক (প্রশাসন) ও এটুআই প্রোগ্রামের প্রকল্প পরিচালক কবির বিন আনোয়ার, মাস্টারকার্ড বাংলাদেশের কান্ট্রি ম্যানেজার সৈয়দ মোহাম্মদ কামাল ও ব্যাংক এশিয়ার প্রেসিডেন্ট ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. আরফান আলী। এ সময় প্রতিষ্ঠান তিনটির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারাও সেখানে উপস্থিত ছিলেন।

 

মাষ্টারকার্ড

এটুআই প্রোগ্রামের প্রকল্প পরিচালক কবির বিন আনোয়ার বলেন, ‘এই সমঝোতা স্মারক দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে ব্যাংকিং সেবার বাইরে থাকা জনগোষ্ঠীর কাছে আর্থিক সুবিধা পৌঁছে দিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। এই মাষ্টার কার্ডের মাধ্যমে ব্যাংকিং সেবার বাইরে থাকা জনগোষ্ঠী খুব সহজে ব্যবহার করতে পারবে।

চুক্তির বিষয়ে মাস্টারকার্ড বাংলাদেশের কান্ট্রি ম্যানেজার সৈয়দ মোহাম্মদ কামাল বলেন, চুক্তিটি ব্যাংকিং সেবা বহির্ভূত জনগোষ্ঠীর হাতে বড় পরিসরে পেমেন্ট অপশন তুলে দিবে এবং সেসকল মানুষের দৈনন্দিন জীবনে মাস্টারকার্ডের অভিনব প্রযুক্তির ব্যবহার নিশ্চিত করবে এবং নতুন উদ্ভাবনের সাথে পরিচয় করিয়ে দিতে সহায়তা করবে।

ব্যাংক এশিয়ার প্রেসিডেন্ট ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. আরফান আলী বলেন, এই চুক্তিটির ফলে দেশের প্রতিটি জনগণের একটি করে ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থাকার অধিকার নিশ্চিত করবে।

এই সমঝোতা স্মারকটির আওতায় এটুআই ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টারের ব্যাংক এশিয়া’র এজেন্ট ব্যাংকিং প্ল্যাটফর্মকে সহায়তা প্রদান করবে। ব্যাংক এশিয়া এক্ষেত্রে গ্রাহকদের নিকট মাস্টারকার্ড ব্যবহার করে সেবাটি প্রদান করতে পারবে। আর এভাবে ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টারের (ইউডিসি) মাধ্যমে প্রত্যন্ত গ্রামাঞ্চলে আর্থিক সেবা পৌঁছে দেওয়ার ব্যাপারে সহায়তা করবে এটুআই।