টেক নিউজ

ফোনের গতি কমিয়ে সমালোচনার মুখে অ্যাপল

অ্যাপেলের বিরুদ্ধে এতোদিন অভিযোগ ছিলো তারা জেনে বুঝে পুরাতন ফোনে নতুন আপডেট পাঠিয়ে ফোনের গতি কমিয়ে দেয়। এবার অ্যাপল নিজেই পরোক্ষভাবে গতি কমানোর বিষয়টি স্বীকার করেছে।

তাদের মতে পুরাতন ফোনের ব্যাটারিকে সচল রাখতে ও ফোনকে শাট ডাউন হওয়ার হাত থেকে বাঁচাতে নতুন আইওএস আপডেট দেওয়া হয় আর এতে করে ফোনের গতি কমে যেতে পারে। অ্যাপল আরও জানায়, গত বছর আইফোন ৬, ৬ প্লাস ও ইএসের গতি আপডেটের কারনে ধীর করা হয়েছে। আইফোন ৭ ও ৭ প্লাস সংস্করণও আপডেট করার কাজ চলছে।

রেডিট ও গিগবেঞ্চের ওয়েবসাইটে ফ্ল্যাগশিপ ফোনের পারফর্মেন্স ও ব্যাটারি নিয়ে আলোচনা শুরু হওয়ার পরই অ্যাপল এ বিবৃতি প্রদান করে।

এ বিবৃতির পর স্বাভাবিকভাবেই অ্যাপল ব্যবহারকারীদের মধ্যে ক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে। ইতোমধ্যে শিকাগো ও ক্যালিফোর্নিয়ার দুই ব্যবহারকারী অর্থনৈতিক ক্ষতি করার অভিযোগে অ্যাপলের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন।

তবে অ্যাপল যুক্তি দিয়েছে যদি আইফোনের প্রসেসর সমৃদ্ধ করা হয় তাহলে পুরানো ফোন লোড নিতে পারবে না। উল্টো বার বার বন্ধ হয়ে যাবে। এই সমস্যার সমাধান করার জন্যই পুরানো ব্যাটারি কতো পরিমাণ শক্তি ধারণ করতে পারবে তা আইওএস আপডেটের মাধ্যমে নিয়ন্ত্রণ করা হয়ে থাকে। বাগ ফিক্স করার বদলে তারা এমন একটি ফিচার পাঠিয়ে দিচ্ছে যা হঠাৎ হঠাৎ ফোন বন্ধ হয়ে যাওয়া রোধ করলেও তা ফোনের গতি কমিয়ে দিচ্ছে।

তবে ধারণা করা হচ্ছে, অ্যাপল জেনে শুনেই আইফোনের প্রসেসরে সীমাবদ্ধতা আনছে।ব্যবহারকারীদের অভিযোগ, নতুন ফোন বাজারে আসার আগেই অ্যাপল ফোনের গতি স্লো করে দিচ্ছে যাতে ব্যবহারকারীরা নতুন ফোন কিনতে বাধ্য হন।

সংগৃহীত